ইউটিউবে আয়ের নতুন উপায় ‘সুপার থ্যাংকস’ এলো?

ইউটিউবে আয়ের নতুন উপায় ‘সুপার থ্যাংকস’ এলো?

ইউটিউবে আয়ের নতুন উপায় ‘সুপার থ্যাংকস’ এলো?

ইউটিউব পার্টনার প্রোগ্রামে যুক্ত রয়েছেন এমন সকল যোগ্য ক্রিয়েটরের জন্য “Super Thanks” ফিচারটি চালু করেছে ইউটিউব। সম্প্রতি এই ফিচারটি বর্ধিত করার ঘোষণা দেওয়া হয়। এই ফিচারের মাধ্যমে ভিডিওতে ক্রিয়েটরদের Tip বা অর্থ প্রদান করতে পারবেন দর্শকগণ। 

এর ফলে ৬৮টি দেশের লক্ষ লক্ষ ক্রিয়েটর এই নতুন মনিটাইজেশন ফিচারটির অ্যাকসেস পেতে যাচ্ছেন। এই ফিচারটির অ্যাকসেস বর্ধিত করার আগে কিছু র‍্যান্ডম ক্রিয়েটরদের জন্য এউ ফিচারটি ব্যবহারযোগ্য ছিলো। এখন থেকে ইউটিউব স্টুডিও ব্যবহার করে সকল এলিজেবল অর্থাৎ যোগ্য ক্রিয়েটর “সুপার থ্যাংকস” ফিচারটি চালু করতে পারবেন।

এই ফিচারটি ব্যবহার করে ভিউয়ারগণ ক্রিয়েটরদের ভিডিও এর জন্য প্রশংসা প্রদর্শনের অংশ হিসেবে চারটি নির্দিষ্ট অংকের অর্থ টিপ হিসেবে প্রদান করতে পারবেন, যা ২ডলার থেকে ৫০ডলার এর মধ্যে সীমাবদ্ধ। এছাড়া ভিউয়ারগণ তাদের সুপার থ্যাংকস কমেন্ট কাস্টমাইজও করতে পারবেন, যেখানে পূর্বে সুপার থ্যাংকস এর মেসেজ ডিফল্ট হিসেবে শুধুমাত্র “Thanks” ছিলো। সুপার থ্যাংকস মেসেজ কাস্টমাইজ করার সুবিধার মাধ্যমে ভিউয়ার ও ক্রিয়েটরের মধ্যে একটি অর্থপূর্ণ সম্পর্ক তৈরী হবে।

কোনো ভিউয়ার সুপার থ্যাংকস পাঠানোর পর চ্যানেলের ভিডিওতে এনিমেটেড GIF দেখতে পাবেন ও সুপার থ্যাংকসকে হাইলাইট করে কমেন্ট পাঠাতে পারবেন। আবার একজন ক্রিয়েটর এই সুপার থ্যাংকস এর কমেন্টে হার্ট বা লাইক রিয়েকশন প্রদান করতে পারবেন।

“প্রতিদিন ইউটিউব ক্রিয়েটরগণ আমাকে শিখতে ও নতুন কিছু অর্জন করতে সাহায্য করে – হতে পারে তা প্যান্ডেমিক এর সময়ে বেকিং করা কিংবা গত সপ্তাহে আমার বাইক ঠিক করা। কেমন হয় যদি আপনার পছন্দের ক্রিয়েটরকে স্পেশাল ধন্যবাদ জানানো যায় বা কোনো নির্দিষ্ট ভিডিও যা আপনাকে নতুন কিছু শিখিয়েছে বা সাহায্য করেছে তার জন্য প্রশংসা করা যায়? সুপার থ্যাংকস এর মাধ্যমে এখন থেকে এই সুবিধা পাওয়া যাবে।” – একটি বিবৃতিতে ইউটিউব এর পেইড ডিজিটাল গুডস এর প্রোডাক্ট ম্যানেজার, সামান্তা স্টিভেনস একথা বলেন।

সুপার থ্যাংকস হলো ইউটিউব এর “পেইড ডিজিটাল গুড” ফিচার এর মধ্যে একটি। মূলত ফ্যানরা যেসব উপায়ে ক্রিয়েটরদের সরাসরি পে করতে পারে, সেগুলোকে এই প্ল্যাটফর্মের অন্তর্ভুক্ত ধরা হয়। এছাড়াও Super Chat মনিটাইজেশন ফিচার ও রয়েছে, যা দ্বারা লাইভস্ট্রিম থেকে ক্রিয়েটরগণ আয় করতে পারেন। এছাড়া নিজের পছন্দের ক্রিয়েটরদের সাপোর্ট দেখানো ও তাদের সাথে যুক্ত হওয়ার লক্ষ্যে Super Stickers নামেও একটি ফিচার রয়েছে।

টুইচ এর মনিটাইজেশন ফিচারগুলো বেশ উন্নত, যার ফলে টুইচ এর মত ক্রিয়েটরদের ডিরেক্ট পেমেন্ট প্রদানে দেখা যায় অন্যান্য ভিডিও প্ল্যাটফর্মকেও। এই সুপার থ্যাংকস ফিচারের কল্যাণে টুইচ থেকে ইউটিউবকে অনেকটা স্বতন্ত্র প্ল্যাটফর্ম বলে মনে হবে। এই ফিচার দ্বারা লাইভস্ট্রিম ছাড়াও আলাদা ভিডিওতে ক্রিয়েটদের কাজের প্রশংসা হিসেবে অর্থ বা উপহার দেওয়া যাবে যা বেশ অসাধারণ একটি সংযোজন বলা চলে।

এমনকি ইন্সটাগ্রামেও লাইভস্ট্রিম এর সময় ক্রিয়েটরদের পেমেন্ট পাঠানো যায় “Badges” ফিচার এর মাধ্যমে। তবে ইন্সটাগ্রামেও সাধারণ পোস্ট বা রিলস ভিডিওতে কোনো ধরনের পেমেন্ট এর অপশন নেই। তবে মজার ব্যাপার হলো, টাম্বলার এ একটি মনেটাইজেশন ফিচার রয়েছে যার মাধ্যমে ব্যবহারকারীগণ পোস্টে ওয়ান-টাইম পেমেন্ট করতে পারেন।

ইউটিউব এর ভাষ্যমতে তারা ক্রিয়েটরদের রেভিনিউ এর উৎসে বৈচিত্র্য আনতে চায় নতুন আয়ের উপায় প্রদানের মাধ্যমে। এর মানে হলো ভবিষ্যতে ইউটিউবে আরো নতুন ধরনের বিভিন্ন মনেটাইজেশন টুলস আসার সম্ভাবনা রয়েছে।


আমরা প্রতিদিন এই ওয়েবসাইটে নতুন নতুন পোস্ট পাবলিক করি, আপনারা যদি আমাদের পোস্ট গুলো সবার আগে পড়তে চান, তাহলে এখনই আমাদের মোবাইল এপ্লিকেশনটি ডাউনলোড করে ফেলুন, পরবর্তীতে কোন বিষয়ের উপর পোস্ট দেখতে চান নিচে কমেন্ট করে জানিয়ে দিবেন, সবাই ভালো থাকবেন সম্পূর্ণ পোস্টটি পড়ার জন্য ধন্যবাদ।

Post a Comment

দয়াকরে কমেন্টে আপনার মূল্যবান মতামতটি জানিয়ে দিবেন।

Previous Post Next Post
close